টলিউড

বিয়ে করতে চান! রচনার প্রশ্নবাণে সলজ্জ হাসি শ্বেতা’র

যমুনা ঢাকি ধারাবাহিকের হাত ধরে শুরু হয়েছিল প্রেমের! বর্তমানে একে অপরের সঙ্গে গাঢ় গভীর প্রেমের সম্পর্কে আবদ্ধ যমুনা ঢাকি ধারাবাহিকের নায়ক রুবেল দাস ও নায়িকা শ্বেতা ভট্টাচার্য! দুজনেই ফের টিভির পর্দায় ফিরেছেন! ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে রুবেলের নতুন ধারাবাহিক নিম ফুলের মধু অন্যদিকে শ্বেতার আসন্ন ধারাবাহিক সোহাগ জল অন এয়ার হওয়ার অপেক্ষায়!

সম্প্রতি নিজের নতুন ধারাবাহিকের প্রমোশনের জন্য টিম সোহাগ জল উপস্থিত হয়েছিল জি বাংলার দিদি নং ১-এর মঞ্চে!আর সেখানেই শ্বেতাকে তাঁর বিয়ের প্ল্যান নিয়ে প্রশ্ন করেন রচনা বন্দ্যোপাধ্যায় নায়িকাও সলজ্জ ভঙ্গিতে জবাব দেন। তিনি বলেন, গল্পের জুঁই তো হোমলি, বিয়ে করতে চায়। তা তোমার প্ল্যানটা  কী সেটা বলো শ্বেতা’? এই জবাবে লাজুক অভিনেত্রী বলে ওঠেন, ‘হ্যাঁ, আমিও বিয়ে করতে চাই’।

এরপর‌ই শ্বেতাকে উদ্দেশ্য করে ‘দিদি নম্বর ১’ সঞ্চালিকা বলে ওঠেন, ‘দেখো তোমায় যদি কেউ বলে থাকে জীবনটা ‘নিম ফুলের মধু’ তাহলে কিন্তু এমনটা হয় না’। একথা শুনেই হাসতে শুরু করেন সকলে। রচনা যে কোন দিকে ইঙ্গিত করছেন তা এক মূহুর্তেই সকলে বুঝে যান। শ্বেতা ইঙ্গিত বুঝেই সঙ্গে সঙ্গে বলে ওঠেন, ‘হ্যাঁ, ‘নিম ফুলের মধু’ জি বাংলারই অন্য আর একটা ধারাবাহিক। রাত ৮টার সময় হয়। সবাই অবশ্যই দেখবেন কিন্তু’।

কিছুদিন আগেই শ্বেতা-রুবেলের প্রেমের জল্পনায় শিলমোহর পড়েছে। বেশ কিছুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল একে অপরের সঙ্গে সম্পর্কে রয়েছে রুবেল এবং শ্বেতা। জন্মদিন থেকে দুর্গাপুজোর সব কিছুই তাঁরা একসঙ্গে উদযাপন করতে পছন্দ করেন! সম্প্রতি রুবেলের মায়ের জন্মদিন উদযাপনের ছবিতে ধরা পড়লেন শ্বেতা! ক্রমেই প্রগাঢ় হচ্ছে এই জুটির প্রেমের সম্পর্ক! সোশ্যাল মাধ্যমে সমস্ত ছবি ভাগ করে নিয়েছেন অভিনেতা রুবেল দাস!

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই শ্বেতার সঙ্গে নিজের সম্পর্কের কথা এক প্রকার স্বীকার করে নিয়েছেন রুবেল! অভিনেতা জানিয়েছিলেন যমুনা ঢাকি সিরিয়াল শুরুর অনেক আগে থেকেই পরিচয় ছিল তাদের। বারাসাতে একই নাচের গ্রুপে নাচ শিখতেন তাঁরা আর সেখান থেকেই পরিচয়। একে অপরের সঙ্গ চুটিয়ে উপভোগ করছেন তাঁরা! বিয়ের চিন্তাভাবনাও রয়েছে তাঁদের!

একটি সাম্প্রতিক সাক্ষাৎকারে রুবেল জানিয়েছেন, তিনি ও শ্বেতা ডেট করছেন। তাঁদের পরিবারের সদস্যরাও জানেন তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে। তবে এখনও পর্যন্ত কেউ কাউকে অফিশিয়ালি অপর জনকে প্রেমের প্রস্তাব দেননি। আসলে তাঁরা মনে করেন, ইদানিং সম্পর্কগুলি ভীষণ ঠুনকো হয়। আর সেই কারণেই তাঁরা নিজেদের সম্পর্কের জন্য আরও একটু সময় চান!



Back to top button