টলিউডবিনোদন

তারাদের দেশে ঐন্দ্রিলা, মা’কে না পেয়ে মুষড়ে পড়েছে দুই পোষ্য তোজো-বোজো

দীর্ঘ ২০ দিনের লড়াই শেষে রবিবার অর্থাৎ ২০শে নভেম্বর দুপুর ১২.৫৯ মিনিটে প্রয়াত হন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা! দীর্ঘ শারীরিক লড়াই শেষে চলে যান জিয়ন কাঠি খ্যাত অভিনেত্রী! মাত্র ২৪ বছর বয়সে প্রয়াত হন এই অভিনেত্রী! তাঁর মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ টলিউড! তাঁর ফিরে আসার জন্য প্রার্থনা করেছিলেন সবাই! কিন্তু সবার সব প্রার্থনা বিফলে দিয়ে রবিবার প্রয়াত হন তিনি!

গত সপ্তাহে বুধবার পর পর হৃদরোগে আক্রান্ত হন অভিনেত্রী! এরপর শনিবার বিকেলে ফের হৃদরোগে আক্রান্ত হন অভিনেত্রী! এরপর শনিবার রাতে ১০ বার হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি! এরপর রবিবার সকালে ফের হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি! বহুচেষ্টা করেও তাঁকে কোমা থেকে ফেরানো যায়নি! উল্লেখ্য, গত ১লা নভেম্বর ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়েছিলেন অভিনেত্রী! তাঁকে হাওড়ার হাসপাতালে ভর্তি করে রাখা হয়েছে! সেখানেই অস্ত্রপচার হয় অভিনেত্রী’র! প্রথমদিকে অবস্থা এতটা গুরুতর না হলেও অবস্থা অত্যন্ত সংকটপূর্ণ হতে থাকে! দুবার ক্যান্সার’কে হারিয়ে ফিরে এসে সাজিয়ে নিয়েছিলেন নিজের জীবনটা নতুন করে! কিন্তু তার সেই ভালো থাকা বেশি দিনের জন্য স্থায়ী হলো না! ব্রেন স্ট্রোক ও লাগাতার হৃদরোগ  আক্রান্ত হয়ে গতকাল অকাল প্রয়াত হলেন তিনি! গতকাল রাত পৌনে ৮টা নাগাদ কেওড়াতলা শ্মশানে অভিনেত্রীর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

উল্লেখ্য, কালার্স বাংলার ‘ঝুমুর’ ধারাবাহিক দিয়ে বাংলা টেলিভিশনের জগতে পা রাখেন মুর্শিদাবাদের মেয়ে ঐন্দ্রিলা। এরপর স্টার জলসার ‘জীবন জ্যোতি’ ধারাবাহিকেও মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। তবে তিনি সর্বাধিক জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন সান বাংলার ‘জিয়ন কাঠি’ ধারাবাহিকে অভিনয় করে! সেই ২০১৫ সাল থেকে ক্যানসারের সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছিলেন তিনি। গত বছর ফের একবার তাঁর শরীরে হানা দেয় কর্কট রোগ! মানসিক জোড় ছিল অসম্ভব! নিজের শরীরের সঙ্গে তীব্র লড়াই করলেও এবারের লড়াইটা হেরে গেলেন তীব্র আত্মবিশ্বাসী, ধৈর্য্যশীল, অদম্য সাহসী ঐন্দ্রিলা!

ঐন্দ্রিলাকে জড়িয়ে জাপ্টে ছিল তাঁর পরিবার, প্রেমিক সব্যসাচী আর ছিল অবলা দুটো জীব! অভিনেত্রী’র প্রাণপ্রিয় দুই পোষ্য বোজো আর তোজো! আসলে কথা বলতে না পারলেও বোধহীন নয় তারা! হয়ত মানুষের থেকে অনেকটা বেশি কাজ করে তাদের বোধ! আসলে তারা যে স্বার্থহীনভাবে ভালোবাসে! ঐন্দ্রিলা’র প্রয়াণে মুষড়ে পড়েছে ঐন্দ্রিলা’র দুই প্রিয় পোষ্য তোজো ও বোজো’র। ঐন্দ্রিলার শায়িত দেহের পাশে উঠে মা’কে অন্তিম বিদায় জানিয়েছে দু’জনেই! কিন্তু বোঝেনি হয়ত! কিন্তু এতদিন ধরে মা’কে দেখতে না পেয়ে মুষড়ে পড়েছে তারা, ছেড়েছে খাওয়া-দাওয়া বলে জানা যাচ্ছে!







Back to top button