গসিপ

আত্মহত্যারও চেষ্টা করেছিলেন ঐশ্বর্য? খবর ছড়িয়ে পড়তেই হইচই

নানান কারণে বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে বিতর্কে জড়িয়েছেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন। কখনো পারিবারিক কারণে আবার কখনো পেশাগত কারণে বারবার বিতর্কের শিরোনামে এসেছেন তিনি। এর মাঝেই গুজব ওঠে একবার নাকি আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন বিশ্বসুন্দরী। কিন্তু পরে অবশ্য জানা যায় এই খবর সম্পূর্ন ভিত্তিহীন।

পাকিস্তানের এক সংবাদ মাধ্যমে দাবি করা হয়, অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল ছবির পর এমনই ঘটনা ঘটে ঐশ্বর্য রাই বচ্চনের সঙ্গে। এই ছবিতে বোল্ড লুকে ধরা দিয়েছিলেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন ও রণবীর কাপুর। তা নিয়ে নাকি বেজায় আপত্তি উঠেছিল বচ্চন পরিবারের অন্দরমহলে। সহ্য করতে না পেড়েই নাকি ঐশ্বর্য রাই বচ্চন আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

এমনকি এই খবরও রটে যায়, আত্মহত্যা করার খবরকে ধামা চাপা দেওয়ার জন্য তাঁকে তখন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় না। বরং বাড়িতেই ডাক্তার ডেকে চিকিৎসা চালানো হয়। যদিও তখন দিব্যি সুস্থই ছিলেন ঐশ্বর্য।

প্রসঙ্গত, যদিও অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল ছবির এই অন্তরঙ্গ দৃশ্য নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন জয়া বচ্চন। জয়া বচ্চনও ঐশ্বর্যের সিনেমার একটি দৃশ্য মানতে পারেননি। যদিও তিনি বৌমার নাম নিয়ে সরাসরি কিছু বলেননি। কিন্তু তাও তাঁর মন্তব্য ইঙ্গিত করেছিল সেদিকেই।

করণ জোহরের পরিচালনায় ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিতে খানিকক্ষণের জন্য দেখা গিয়েছিল ঐশ্বর্যকে। সেখানে রণবীর কাপুরের সঙ্গে চুম্বন ও ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে দেখা গিয়েছিল ঐশ্বর্যকে। এই দেখেই হয়ত বিরক্ত হয়েছিলেন জয়া বচ্চন। এক সাক্ষাৎকারে দৃশ্যটি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন তিনি।

জয়া বচ্চন জানিয়েছিলেন, “আগে পরিচালকেরা শিল্প তৈরি করতেন। এখন সবটা ব্যবসা হয়ে গিয়েছে। মানুষ সভ্যতা ভুলে গিয়েছে। খোলামেলা দৃশ্যই এখন স্মার্টনেস। লজ্জা বলে শরীরে কোনও বস্তু নেই”।

Back to top button