বিনোদন

প্রাক্তনের বিরহ কাটিয়ে এবার বিয়ের পিঁড়িতে অনুপম! পাত্রী কে?

একসঙ্গে থাকলে আজ তাদের বিবাহিত জীবনের বয়স হতো ছয় বছর। কিন্তু আজ দুজনের দুটো পথ দুদিকে চলে গিয়েছে। থমকে গিয়েছে মুহূর্তরা। আজ পিয়া চক্রবর্তী পরমব্রতর ঘরণী। ওদিকে এতদিন একলা নিঃসঙ্গ ছিলেন অনুপম রায়। তবে আর একলা জীবন যাপন নয়। গায়কও খুঁজে পেয়েছেন মনের মানুষকে। খুব শীঘ্রই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন তিনি।

   

ঠিক ছ বছর আগে ৬ ডিসেম্বর গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন অনুপম রায় এবং পিয়া চক্রবর্তী। কথা ছিল একসঙ্গে সারা জীবনের পথ হেঁটে চলার। কিন্তু মাঝপথেই ছন্দপতন হয়। আলাদা হয়ে যায় দুজনের পথ। যদিও তারা জানিয়েছিলেন বিবাহ বিচ্ছেদের পরেও স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক না থাকলেও ভালো বন্ধু হয়ে থাকবেন দুজনে।

কিন্তু এর মাঝে নতুন করে অন্য কারোর সঙ্গে ঘর বাধলেন পিয়া। প্রাক্তনেরই পরম বন্ধু পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে সাতাশি নভেম্বর আইনতভাবে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন তিনি। যে খবর প্রকাশ্যে আসতেই হইহই কান্ড বিভিন্ন মহলে। একই সঙ্গে নানান ধরনের প্রশ্নবাণ এবং কটাক্ষের তীর উড়ে এলো উভয় পক্ষের দিকেই।

এবার বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন অনুপম। আগামী ২ মার্চ পরিবার ও ঘনিষ্ঠ আত্মীয়দের উপস্থিতিতেই রেজিস্ট্রি করেই বিয়ে করবেন অনুপম। পাত্রী টলিপাড়ার গায়িকা প্রস্মিতা পাল। ধুমধাম করে বিয়ে করতে আপত্তি গায়কের। তাই পরিবারের কাছের লোকদের নিয়েই হবে অনুষ্ঠান।

অনুপম বলেন, “পাত্রী প্রস্মিতা। দেখা যাক কী হয়! আমি আশাবাদী বলেই বিয়ে করছি”। প্রস্মিতা ও অনুপম একসঙ্গে ‘হাইওয়ে’ ছবিতে ‘তোমায় নিয়ে গল্প হোক’ গানটি গেয়েছিলেন। এ ছা্ড়াও প্রস্মিতার গাওয়া ‘সাজনা’ কিংবা ‘হতে পারে না’ গানগুলি বেশ জনপ্রিয়।

Back to top button