বিনোদন

হঠাৎ কেন জ্যোতিষ চর্চা ছেড়ে দিয়েছিলেন দীপঙ্কর দে? আসল কারণ জানালেন স্ত্রী দোলন রায়

ছক কষে আগামীতে কার সঙ্গে কী হবে সেটাও বলে দিতে পারতেন তিনি একটা সময়। টলিউডে জ্যোতিষী হিসেবে ভালো নাম হয়েছিল দীপঙ্কর দের। কিন্তু কিছু দিনের মধ্যেই সেই চর্চা ছেড়ে দেন তিনি। সম্পূর্ন মনোনিবেশ করেন অভিনয়ে। কিন্তু কেন ছাড়লেন জ্যোতিষ চর্চা?

এই বর্ষীয়ান অভিনেতা একটা সময় ভাগ্য গণনা করা, মানুষের হাত দেখে তাঁদের ভবিষ্যৎ বলে দিতে পারতেন মুহূর্তের মধ্যেই। ছক কষে আগামীতে কার সঙ্গে কী হবে সেটাও বলে দিতে পারতেন তিনি। মিঠুন চক্রবর্তীর মতো খ্যাতনামা স্টাররাও তাঁর কাছে যেতেন ভাগ্য গণনা করতে। এমনকি মিঠুনের ছেলে মিমোর জন্মছক এই বর্ষীয়ান অভিনেতারই বানিয়ে দেওয়া। কিন্তু তারপরেই হঠাৎ করে এই চর্চা ছেড়ে দেন তিনি।

তাঁর স্ত্রী দোলন রায় এক সংবাদ মাধ্যমকে জানান, ১৯৯৭ সালে যখন তাঁদের সম্পর্ক তৈরি হয় তার কিছুদিনের মধ্যেই জ্যোতিষ চর্চা ছেড়ে দেন দীপঙ্কর। জ্যোতিষ চর্চা ছেড়ে তিনি বিজ্ঞানের পথ বেছে নিন। সেটাকেই আপন করে নেন। এখন তিনি বিজ্ঞানের পড়াশোনাতেই মগ্ন থাকেন।

কিছুদিন আগেই বর্ষীয়ান অভিনেতার বড় কন্যা মারা যায়। তাতে একেবারে ভেঙে পড়েছিলেন তিনি। তখনও সব রকম ভাবে পাশে ছিলেন দোলন। এছাড়াও কিছুদিন আগে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তখনও সেবা করেছেন অভিনেত্রী।

দোলন রায় জানান, “যেভাবে দিলীপ কুমারকে ৯৮ পর্যন্ত বাঁচিয়ে রেখেছিলেন সায়রাবানু। আমিও সেটাই চাই। আমার কাছে দিলীপ কুমার-সায়রা বানু আদর্শ। আমি দীপঙ্করের জীবনে সায়রাবানু হয়ে থাকতে চাই। ওর সব শোক আমার হোক, পরিবর্তে আমার আনন্দ ওর হোক। অমিতাভ পারলে দীপঙ্করও পারবেন”।

Back to top button