গসিপ

ফিরে আসার কিছু নেই! নবনীতার সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে সাফ জবাব জিতুর

জিতু কমল-নবনীতা দাস বাংলা টলিউড জগতের এখন বহুল চর্চিত জুটি। তাঁদের বিচ্ছেদের খবরে সরগরম সংশ্লিষ্ট মহল। পাকাপাকি ভাবে বিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছে তাঁদের। এরমধ্যেই একের পর এক আবেগপূর্ণ পোস্ট করেছেন নবনীতা। কিন্তু নিজের অবস্থান নিয়ে স্পষ্ট বার্তা দিলেন জিতু।

   

২০২৩ সালের মাঝে আচমকাই ফেসবুকে বিচ্ছেদের কথা পোস্ট করেন অভিনেত্রী নবনীতা দাস। এরপর বিগত ৯ মাস একাই থাকতেন দুজনে। বিচ্ছেদ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে আদালতের দ্বারস্থ হন দুজনে। অবশেষে ১৭ নভেম্বর আইনত বিচ্ছেদ হয় তাঁদের।

কিন্তু বিচ্ছেদের পর আবার কি প্রাক্তনকে মিস করতে শুরু করেছেন অভিনেত্রী? সোশ্যাল মিডিয়ার খবর অন্তত বলছে তেমনটাই। সবকিছু ঠিক থাকলেও কোথাও গিয়ে যেন একটা তাল কাটছে। হয়ত প্রাক্তন স্বামী জিতু কমলকে মিস করছেন নবনীতা। ইনস্টাগ্রামের ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কোনও এক পাহাড়ি এলাকায় ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন দুজনে। সেখানেই ভিডিও টা করা মূলত। দুজনে লাফিয়ে বেড়াচ্ছেন পাহাড়ের কোলে। উপভোগ করছেন জীবনের মুহূর্তকে। ভিডিওর ক্যাপশন, বাতো বাতো সে।

তবে পুরনো জায়গায় আর ফিরে যেতে নারাজ অভিনেতা। তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, “আর ফিরে টিরে আসার কিছু নেই! সমাজমধ্যম দেখার খুব একটা সময় হয় না। ফিরে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। কারণ, আমাদের মধ্যে আইনি বিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছে। এর বেশি নবনীতাকে নিয়ে কোনও মন্তব্য আমি করতে চাই না”।

২০১৯-এ ৬ মে বিয়ে হয়েছিল জিতু-নবনীতার। টলিউডে হ্যাপিলি ম্যারেড কাপল হিসেবেই পরিচিত জিতু নবনীতা। কিন্তু হঠাৎ করে ৪ বছর পরেই ছন্দ পতন। তাদের বিচ্ছেদের খবর ছড়িয়ে পড়ে গোটা নেট দুনিয়ায়। তবে আসল কারণ নিয়ে মুখ খোলেননি কোনও পক্ষই। এরমধ্যেই একাধিকবার এই দম্পতির নানান পোস্ট গিয়ে জল্পনা উঠেছে।

Back to top button