টলিউড

সেলসম্যানের কাজ থেকে মদের দোকানের বাইরে কোলা বিক্রি করেও আজ সফল কাঞ্চন মল্লিক

গতবছরই বাংলার জনপ্রিয় কৌতুকাভিনেতা কাঞ্চন মল্লিক ও তাঁর স্ত্রী পিঙ্কি বন্দোপাধ্যায়ের ব্যক্তিগত জীবনের ঝামেলা প্রকাশ্যে এসেছিল। অভিনেত্রী শ্রীময়ী চট্টরাজের সঙ্গে সম্পর্কে রয়েছেন কাঞ্চন এমনটাই অভিযোগ তুলেছিলেন পিঙ্কি। তারপর থেকে ক্রমাগত দুজনের মধ্যে দূরত্ব বেড়েছে। আর ঘনিষ্ঠতা বেড়েছে শ্রীময়ী’র সঙ্গে!

উল্লেখ্য, হাস্যরসাত্মক অভিনয়ে তাঁর জুড়ি মেলা ভার। তিনি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় কৌতুকাভিনেতা কাঞ্চন মল্লিক। জনতা এক্সপ্রেস থেকে আজকে অভিনেতা হিসেবে সাফল্য এই দীর্ঘ পথ চলার পিছনে এক দীর্ঘ লড়াই আছে। অভিনয় ছাপিয়ে বর্তমানে রাজনীতির আঙিনাতেও পা রেখেছেন কাঞ্চন। উত্তরপাড়া থেকে তৃণমূলের হয়ে বিধায়ক হয়েছেন তিনি।

কাঞ্চন মল্লিক এই নামটি শুনলেই হাসি খেলে যায় বাঙালি দর্শকের মুখে। জমাটি অভিনয়, হাস্যরসে পরিপূর্ণ একজন মানুষ তিনি। অত্যন্ত জনপ্রিয়ও বটে। তবে এই খ্যাতি একদিনে আসেনি। কাঞ্চনের বাবা ছিলেন একজন কল কারখানার সামান্য কর্মী। অল্প রোজগারের টাকায় সংসারের হাল ধরতে বড় ছেলে হিসাবে কাঞ্চন সেলসম্যানের কাজ থেকে শুরু করে পার্লারের ম্যানেজার, এমনকী মোদের দোকানের বাইরে দাড়িয়ে কোলা‌ও বিক্রি করেছেন! কি কাজ না করেছেন। অবশেষে সাফল্য।

প্রথমে থিয়েটারে সুযোগ। থিয়েটারের মধ্য দিয়েই অভিনয় শুরু করেছিলেন কাঞ্চন মল্লিক। তিনি একাধিক নাট্য সংস্থার সঙ্গে অভিনয় করার পর ২০০২ সালে টলিউডে পা রাখেন জিতের সুপারহিট সিনেমা ‘সাথী’তে অভিনয় করে। তারপর সেই বছরই তিনি ‘সঙ্গী’ সিনেমায় অভিনয় করার সুযোগ পান।

১৯৭০ সালে কলকাতাতেই জন্ম কাঞ্চনের। কালীঘাট এলাকায় বাসিন্দা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাড়ার এই মানুষটি একটা সময় পর্যন্ত সক্রিয় সিপিআইএম কর্মী ছিলেন।‌যদিও পরে ধীরে ধীরে তৃণমূলের দিকে ঝুঁকে পড়েন। তারপর একুশের বিধানসভায় সরাসরি প্রার্থী পদ পেয়ে বিপুল ভোটে জয়।হাস্যরসাত্মক অভিনয়ের জন্য কাঞ্চনের অভিনয় বারংবার নজর কেড়েছে দর্শকদের। বর্তমানে এই কাঞ্চন মল্লিক কোটিপতি হলেও একটা সময় তিনি খুবই অভাবের মধ্যে দিয়ে পার করেছেন।



Back to top button