বিনোদন

নিজের জন্য কিচ্ছু চাইনি! পদ্মভূষণ পেয়েই এমন কেন বললেন মিঠুন চক্রবর্তী?

নিজের দক্ষতায় ফুটপাথ থেকে আজ রাজপ্রাসাদে উঠে এসেছেন গৌরাঙ্গ চক্রবর্ত্তী ওরফে মিঠুন চক্রবর্তী। তাঁর অভিনয় নিয়ে কেউ কোনও দিন প্রশ্ন তুলতে পারেনি। এবার এই মিঠুন চক্রবর্তীই পেতে চলেছেন পদ্মভূষণ সম্মান। কেন্দ্রের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে তাঁর নাম। আর এই খবর শোনার পরেই ভিডিও বার্তায় নিজের খুশি প্রকাশ করেছেন তিনি।

ভিডিও বার্তায় মিঠুন চক্রবর্তী জানালেন, ‘‘আমি গর্বিত, আমি আনন্দিত এই পুরস্কার পাওয়ার জন্য। আমি আমার জীবনে কখনও নিজের জন্য কারোর কাছ থেকে কিছু চাইনি। তাই কিছু না চেয়ে পাওয়ার যে আনন্দ আজ যে কতটা হচ্ছে আজ তা উপলব্ধি করছি।’’

এই সম্মান তিনি নিজের অনুরাগী, শুভাকাঙ্ক্ষীদের উৎসর্গ করছেন বলে জানান। অভিনেতা বলেন, “পুরস্কার পাওয়ায় দারুণ অনুভূতি হচ্ছে। এই সম্মান দেশ এবং বিদেশের আমার ফ্যান এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের উৎসর্গ করছি। যাঁরা এতদিন ধরে আমাকে নিঃস্বার্থভাবে ভালবেসেছেন এবং এখনও ভালবেসে চলেছেন। আমাকে যে সম্মান দেওয়া হল, সেই সম্মান পেয়ে আমি সত্যিই গর্বিত। যাঁরা আমাকে মনোনীত করলেন, তাঁদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা এবং ভালবাসা রইল”।

প্রসঙ্গত, ১৯৭৬ সালে মৃণাল সেনের পরিচালনায় মৃগয়া ছবিতে প্রথম অভিনয় করেন তিনি। জিতে নেন সেরা অভিনেতা হিসেবে জাতীয় পুরস্কার। এরপর মুখ্য চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ না পেয়ে কার্যত হারিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। এরপরে, তাঁকে খ্যাতির আলোয় নিয়ে এল ‘ডিস্কো ডান্সার’ ছবিটি। শুধু অভিনয় নয়, মিঠুন পরিচিত হলেন এক দুর্দান্ত নৃত্যশিল্পী হিসেবেও।

ব্যক্তিগত জীবনে, অভিনেত্রী যোগীতা বালির সঙ্গে বিয়ে হয় মিঠুনের। তাঁর দুই সন্তানও রয়েছে। শোনা যায়, একসময় শ্রীদেবীর সঙ্গে সম্পর্ক ছিল মিঠুনের। সেই সম্পর্ক এগিয়েছিল এতটাই যে ইন্ডাস্ট্রির অন্দরে একথাও ভাসে যে গোপনে বিয়ে করেছিলেন তাঁরা। কিন্তু শ্রীদেবী যখন বুঝতে পারেন মিঠুন তাঁর স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ চান না, সম্পর্ক থেকে সরে আসেন শ্রীদেবী।

Back to top button