ভাইরাল

চন্দ্রযান-৩ এর সাফল্য কামনায় দিনভর উপোস সীমা হায়দারের! পাক মহিলার কাণ্ডে সাধুবাদ নেটাগরিকদের

বুধবার ১৪০ কোটি ভারতবাসীর কাছে ছিল গর্বের দিন। চাঁদের মাটিতে সফলভাবে পৌঁছেছে চন্দ্রযান ৩। নজির স্থাপন করেছেন ইসরোর বিজ্ঞানীরা। চন্দ্রযান বিক্রম, এদিন সন্ধ্যা ৬ টা ৪ মিনিটে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণ করে। চন্দ্রযান ৩-এর সাফল্যের পিছনে রয়েছে ইসরোর বিজ্ঞানীদের অক্লান্ত পরিশ্রম। চন্দ্রযান যাতে সফল ভাবে অবতরণ করতে পারে তার জন্য প্রার্থনা চলছিল সারা দেশ জুড়ে। তবে এর মধ্যেই এই মহিলা তাক লাগালেন।

   

একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন সীমা হায়দার ওরফে সীমা শচীন মীনা। সেখানে তাঁকে বলতে শোনা যাচ্ছে, “ভগবান রাধা কৃষ্ণের আমার অনেক বিশ্বাস । ভারতের চন্দ্রযান সফলভাবে চাঁদে না আসা পর্যন্ত আমার এই উপোস চলবে। আমার শরীর ভালো নেই। তবুও চন্দ্রযানের সাফল্য কামনায় উপোস করেছি।”

ল্যান্ডার মডিউল (LM) প্রায় ৫.৪৪ মিনিটে নির্ধারিত পয়েন্টে পৌঁছানোর জন্য অপেক্ষা করছিল। লাইভ টেলিকাস্ট শুরু হয় ৫.২০ থেকে। এরপর ল্যান্ডার (বিক্রম) এবং রোভার (প্রজ্ঞান) ঠিক সন্ধ্যা ৬.০৪ মিনিটে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে সফট ল্যান্ডিং করে।

ইতিহাস স্থাপন করে ‘মিশন ইন্ডিয়া’। চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে পৌঁছায় চন্দ্রযান ৩।ল্যন্ডার বিক্রমের ভিতর থেকে বেরিয়ে এসে চাঁদের মাটিতে পা রেখে ফেলেছে রোভার প্রজ্ঞান। তারপরেই যেন খেল দেখানো শুরু করেছে চন্দ্রযান 3-এর রোভার। ইতিমধ্যেই চাঁদের এদিক ওদিক গুটি গুটি পায়ে ঘুরে বেরাচ্ছে সে। এবার এই প্রজ্ঞানই চাঁদের সমস্ত অজানা তথ্য পাঠাতে শুরু করবে ইসরোকে।

Back to top button