বিনোদন

রচনাকে নাকি পাত্তাই দিতেন না এই নায়ক! আক্ষেপ অভিনেত্রীর

রূপের দিক থেকে বরাবরই এভারগ্রীন রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার বয়স পঞ্চাশ ছুই ছুই হলেও দেখে বোঝার উপায় নেই। অভিনয় থেকে আপাতত নিজেকে সরিয়ে রাখলেও দিদি নাম্বার ওয়ান এর সঞ্চালিকা হিসেবে তার জনপ্রিয়তা এখন শীর্ষে। যেভাবে নিজেকে তিনি মেনটেইন করেন তাতে তার শরীরে কোনরকম ভাবেই বয়সের ছাপ পড়েনি। কিন্তু এই অভিনেত্রীকেই নাকি পাত্তা দিলেন না এক হিরো। আর তাই নিয়ে আক্ষেপের শেষ নেই অভিনেত্রীর।

   

শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের এক টক শোতে এসেছিলেন একবার রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানেই তিনি জানান, ৩৫-৪০ টি ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছিলেন তিনি এবং অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। রচনা বলেন, “কিন্তু কোনওদিনও আমাকে পাত্তা দিল না লোকটা। কোনদিনও মনে করল না রচনা সঙ্গে একটু প্রেম করা যায়”। যদিও গোটা বিষয়টিই ছিল মজার ছলে।

প্রায় এক যুগ ধরে চলছে দিদি নম্বর ১। আর এখনো সেই প্রথম দিনের মতোই জনপ্রিয় রয়েছে এই অনুষ্ঠান। যদিও জনপ্রিয়তার অন্যতম কারণ অবশ্যই এই অনুষ্ঠানের সঞ্চালিকা রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর জন্যই যে এই অনুষ্ঠান আরও জনপ্রিয়তা পেয়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা। একইসঙ্গে বহু মানুষের অনুপ্রেরণাও তিনি।

রোজ বিকেলে এই দিদি নাম্বার ওয়ান দেখার জন্য মুখিয়ে থাকেন প্রতিটি ঘরের মহিলারা। আর সেই সঙ্গে কখন যেন ঘরের মেয়ে হয়ে উঠেছেন এই রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতিদিন এত মহিলার জীবন সংগ্রামের কথা শোনেন তিনি। অনুপ্রেরণা জোগা়ন প্রতিযোগীদের। সেই জায়গা থেকে দাঁড়িয়ে তাঁকে কোথাও যেন ভরসাও করেন প্রতিযোগীরা।

Back to top button