গসিপ

রানীর জন্যই ৮ বছরের বিয়ে ভাঙে আদিত্য চোপড়ার! বিতর্কের মুখে কী জবাব দিলেন অভিনেত্রী?

কখনোই খুব একটা প্রকাশ্যে আসেনি রানী মুখার্জির ব্যক্তিগত জীবন। এমনকি কোনো বিতর্কও তাঁকে খুব একটা ছুঁতে পারেনি। কিন্তু অভিনেত্রীর জীবনেও আছে অজানা এক কাহিনী। রানী মুখার্জি তাঁর স্বামীর দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রী। শোনা যায়, রানী মুখার্জির জন্যই নাকি আদিত্য চোপড়ার আগের বৈবাহিক জীবনে চিড় ধরেছে।

   

২০১৪ সালের ২১ এপ্রিল আদিত্যর সঙ্গে ইতালিতে বিয়ে করেছিলেন রানি। বি টাউনে কান পাতলেই শোনা যায়, আদিত্যর মতো বড় প্রযোজকের সঙ্গে মেলামেশা করতে শুরু করেছিলেন এবং তাঁকে প্রেমের ফাঁদেও ফেলেছিলেন রানি।

পায়েল খান্না বলে একজন ইন্টিরিয়র ডিজাইনারের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল আদিত্য চোপড়ার। মুম্বইয়ের স্কটিশ স্কুলে পরার সময় একে-অপরের কাছাকাছি এসেছিলেন পায়েল-আদিত্য।২০০১ সালে বিয়ে করেছিলেন তাঁরা। ৮ বছরের দাম্পত্য ছিল তাঁদের।

আদিত্যর বাবা-মা যশ চোপড়া এবং পামেলা চোপড়া পায়েলকে ভীষণ ভালবাসতেন। এবং সেই কারণে তাঁরা হঠাৎ করে রানিকে পুত্রবধূ হিসেবে আপন করে নিতে পারেননি।২০০৯ সালে পায়েলকে ডিভোর্স দিয়েছিলেন আদিত্য।

যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেন রানী। তিনি বলেন, আদিত্যর সঙ্গে আলাপ সময় প্রযোজক নাকি সিঙ্গেলই ছিলেন। রানী জানান, “আমি এমন মেয়ে নই যে, নিজের কেরিয়ার গোছানোর জন্য কোনও প্রযোজককে ডেট করব। কিংবা তাঁর সঙ্গে ঘুরে বেড়াব। আদিত্যর সঙ্গে স্বামী যখন আমার সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল, আমি তখন কোনও ছবিতেই অভিনয় করছিলাম না”।

Back to top button