বিনোদন

বাবার এই কাজ মোটেই পছন্দ নয় সানার! মেয়ের কথা মত কি এই কাণ্ড থেকে বিরত থাকলেন সৌরভ?

বাবার মত বিদেশের মাটিতে গিয়ে দেশের নাম উজ্জ্বল করেছে মেয়েও। আর মেয়ে সানা গাঙ্গুলীর সাফল্যে গর্বিত তাঁর বাব সৌরভ গাঙ্গুলিও। লন্ডনে গ্লোবাল ইউনিভার্সিটি থেকে দারুন রেজাল্ট নিয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেছে সানা। এবার সেখানে নতুন কাজেও যোগ দিয়েছে সে। কিন্তু সেই লন্ডনের মাটিতেই বাবার এক কাজ নাকি মোটেও পছন্দ হয়নি সানার।

   

গত বছর জন্মদিনে লন্ডনে গিয়ে প্রকাশ্য রাস্তায় দেদার নাচ করেছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলি। লন্ডন আইয়ের সামনে দাদা বিন্দাস নাচানাচি করছিলেন যা দেখে সকলেই দারুণ মজা পেয়েছিলেন৷ কিন্তু বাবার এই কাজ মোটেই পছন্দ করেননি সানা।

ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছিল, রাস্তাতেই মুখে হাত ঢাকা দিয়ে বসে পড়েন সানা৷ কিন্তু সৌরভ নাচ তো থামানইনি বরং মেয়েকেও টেনে নিয়ে নাচতে শুরু করেন সেই রাতে।

উচ্চশিক্ষার জন্য লন্ডনের গ্লোবাল ইউনিভার্সিটিতে অর্থনীতি নিয়ে ভর্তি হয়েছিল সানা গাঙ্গুলি। মেয়েকে দুর দেশে রেখে এসে মন খারাপ ছিল মহারাজের। তাই সময় পেলেই মেয়ের সঙ্গে দেখা করতে সেখানে উড়ে যেতেন তিনি। মেয়ের সাফল্যে মা-বাবা হিসাবে সেখানে উপস্থিত ছিলেন সৌরভ-ডোনা।

সম্প্রতি দাদাগিরির মঞ্চে সৌরভ জানান, “এখন ঝগড়া চলছে… সানা খুব একটা কথাবার্তা শোনে না। সব বিষয়ে খুব একটা মতামত রয়েছে। মতামত নিয়ে বাবার সঙ্গে ঝগড়াঝাটি হয়, তবে হ্যাঁ, সানাই সবচেয়ে প্রিয়”।

এদিকে জীবনের প্রথম বেতন পেয়েই বাবাকে উপহার দিতে উদ্যোগী হয়েছিল সানা। এই প্রসঙ্গে সৌরভ বলেছিলেন, “আসলে এই মাসেই প্রথম মাইনে পেয়েছে ও। আসলে দূরে থাকে তো। আমাকে ফোন করে বলল, তোমায় এই গিফটটা দেব। আমি জিজ্ঞেস করলাম দাম কত? এমন দাম শোনাল, আমি বললাম আমার লাগবে না। তোমার প্রথম রোজগার তুমি জমাও। আসলে ছেট মানুষ তো ভেবেছে বোধহয় বাবাকে উপহার দতে গেলে অনেক দামী কিছু দিতে হয়। নাহলে বাবা খুশি হয় না। আমি বললাম আমাকে সামান্য কিছু দিও, তাতেই আমি খুশি”।

Back to top button