বিনোদন

হোটেল কর্তৃপক্ষ কীভাবে পরিচালনা করেছেন জানিনা! প্রবেশ নিষেধাজ্ঞার বিতর্কে সাফাই শ্রীময়ীর

কয়েকদিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় একমাত্র চর্চার বিষয় কাঞ্চন ও শ্রীময়ীর বিয়ে। তাঁরা কিভাবে বিয়ে করছেন কতটা জাঁকজমক হচ্ছে অনুষ্ঠান এই সব কিছুই জানতে উৎসুক ছিলেন অনুরাগীরা। অনুষ্ঠানের দিন দেখা গেল কাঞ্চন-শ্রীময়ীর রিসেপশন ভেন্যুর বাইরে লাগানো বোর্ডে লেখা ‘মিডিয়া, বডিগার্ড ও ড্রাইভারদের প্রবেশ নিষেধ’। তাঁদের এক কাণ্ডে রীতিমত ক্ষেপে আগুন বিভিন্ন মহল। অভিনেতার নিন্দেয় সরগরম নেট দুনিয়া। এবার এই নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানালেন শ্রীময়ী।

   

বিয়ে কিংবা বৌভাতে মিডিয়ার প্রবেশের অনুমতি নেই বলে আগেই জানিয়েছিলেন কাঞ্চন ও শ্রীময়ী। কিন্তু অনুষ্ঠান বাড়ির বাইরে নোট দিয়ে সেটা লিখে দেওয়া অভব্যতার চূড়ান্ত পর্যায় বলেই মনে করছেন সকলে।

কাঞ্চন-শ্রীময়ীর রিসেপশন ভেন্যুর বাইরে লাগানো বোর্ডে লেখা ‘মিডিয়া, বডিগার্ড ও ড্রাইভারদের প্রবেশ নিষেধ’। আর সেই ছবি চারিদিকে ছড়িয়ে পড়তেই উঠেছে নিন্দার রব। এমন নিন্দনীয় ঘটনায় রেগে গিয়েছেন টলিতারকাদের অনেকেও।

সংবাদমাধ্যম থেকে বিয়েকে দূরে রাখা নতুন কিছু নয়। কিন্তু এইভাবে বোর্ড লাগানো নজির বিহীন। ছিঃ ছিঃ করছেন সকলে। নেটিজেনদের দাবি, এটি অতীব নিন্দনীয় ও ঘৃণ্য কাজ।

এই প্রসঙ্গে এক সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শ্রীময়ীর বক্তব্য, “কাউকে ছোট করা হয়নি। আমরা চেয়েছিলাম খানিকটা গোপনীয়তা বজায় রাখতে। কিন্তু ভুয়ো পরিচয় দিয়ে প্রবেশ করার একটা আশঙ্কা থেকেই যায়। সেই কারণেই হোটেল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিলাম, আমরা সাংবাদিক, নিরাপত্তারক্ষী এবং গাড়ির চালকদের প্রবেশাধিকার বন্ধ রাখতে চাই। যদি অনুষ্ঠানে প্রবেশ অবাধ হয়, তা হলে তো মুশকিল হবেই”।

একইসঙ্গে শ্রীময়ীর দাবি, “আমরা মতামত জানিয়েছিলাম। হোটেল কর্তৃপক্ষ কী ভাবে সেটা পরিচালনা করছেন সে বিষয়ে কোনও তথ্য আমাদের কাছে ছিল না”। অর্থাৎ বকলমে সেই হোটেল কর্তৃপক্ষের উপরেই দায় চাপিয়েছেন তিনি।

Back to top button