বিনোদন

ঋণ শোধ করা খুব কঠিন! হৃদরোগ থেকে খানিকটা সেরে উঠতেই এমন কেন বললেন শ্রেয়স তলপেরে?

শুটিং সেরে বাড়ি ফিরেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন অভিনেতা শ্রেয়স তলপেড়ে। তড়িঘড়ি তাঁকে ভর্তি করানো হয়েছিল হাসপাতালে। মুম্বইয়ের পশ্চিম আন্ধেরির একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন অভিনেতা। সেখানেই তাঁর অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করা হয়েছে তবে এবার কেমন আছেন তিনি সেই নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেতা নিজেই।

জানা গিয়েছে, আগামী ছবির শুটিংয়ের কাজে ব্যস্ত ছিলেন। ছবির সেটে শুটিংয়ের মাঝে সকলের সঙ্গে হাসিঠাট্টা করছিলেন শ্রেয়স। কিন্তু বাড়ি ফিরেই তিনি অস্বস্তি বোধ করতে শুরু করেন। স্ত্রী দীপ্তি তলপড়েকে সেই কথা জানান। দীপ্তি তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে আসার পথেই হৃদরোগে আক্রান্ত হন শ্রেয়স। ৬ দিন হাসপাতালে থেকে খানিক সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন তিনি।

অভিনেতা সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জানান, “প্রথমে আমি সেই সমস্ত লোকজনকে ধন্যবাদ জানাতে চাই, যাঁরা আমাকে সেদিন রাতে সাহায্য করেছিলেন। সমস্ত ডাক্তার , টেকনিশিয়ান, হাসপাতালের কর্মী এবং আমার অনুরাগীরা আমাকে অনেক আশীর্বাদ ও ভালবাসা দিয়েছেন। আমি এখন কিছুটা ভালো আছি। ঈশ্বরের কৃপায় এবং প্রতিটি দিন একটু একটু করে সুস্থ হয়ে উঠছি”।

তিনি আরও বলেন, “আমি এখন একটু একটু করে কাজ শুরু করেছি। তবে আমার মনে হয় এই জীবনে মানুষের এই ঋণ শোধ করা খুব কঠিন। আমি সকলকে যথেষ্ট ধন্যবাদও দিতে পারছি না। তবে আমি এখন খুব খুশি। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে সবকিছু শুরু হয়েছে”।

৪৭ বছর বয়সী এই অভিনেতা নিজের দুই দশকের কেরিয়ারে ৪৫টিরও বেশি সিনেমায় কাজ করেছেন। একাধিক হিট হিন্দি এবং মারাঠি সিনেমায় কাজ করেছেন শ্রেয়স তলপড়ে। বিশেষ প্রশংসিত হয়েছে তাঁর অভিনয়ও।

ওয়েলকাম সিরিজের তৃতীয় কিস্তি ওয়েলকাম টু দ্য জঙ্গলে দেখা যাবে তাঁকে। বৃহস্পতিবার তিনি সেই ওয়েলকাম টু দ্য জঙ্গল-এর শুটিংও করেছিলেন। তারপরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন।

Back to top button