বিনোদন

মানুষটা যদি আমাকে ছেড়ে চলে যায়… চাপা কষ্টে আজও হাহাকার করেন শাহরুখ

বরাবরই ফ্যামিলি ম্যান শাহরুখ খান। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে ভালোবাসেন তিনি। পোষ্য থেকে বাড়ির প্রতিটি সদস্য সকলের সঙ্গেই নির্ভেজাল সময় কাটাতে চান বাদশা। কিন্তু এই শাহরুখ কি একবার জানিয়েছেন কারোর সঙ্গে অ্যাটাচমেন্ট তৈরি করতে চান না তিনি। কিন্তু হঠাৎ এমন কেন বলেছিলেন কিং খান?

   

তিন সন্তান এবং স্ত্রীকে নিয়ে সুখের সংসার শাহরুখ খানের। একেবারে শূন্য পকেট থেকে উঠে এসে মুম্বাইয়ে 700 কোটি টাকার বাড়িতে থাকেন তিনি। অন্যান্য ধনী অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম শাহরুখ খান। তবে এই অবস্থাতে এসেও তিনি জানান কারোর সঙ্গে সেভাবে তিনি মায়ায় জড়াতে চান না। তবে এই নিয়ে তার জীবনের অভিজ্ঞতাও জানিয়েছেন তিনি।

এক সাক্ষাৎকারে কিং খান বলেন, “কোন কিছুর প্রতি আমার অ্যাটাচমেন্ট নেই। আমি অ্যাটাচমেন্টকে ভয় পাই। খালি মনে হয় সেই মানুষটা যদি আমাকে ছেড়ে চলে যায়, তা হলে আমি খুব কষ্ট পাব। যন্ত্রণা ভোগ করব। আমি তখনই দুঃখ পাই যখন দেখি আমার জীবনে কেউ মারা গিয়েছেন কিংবা আমাকে ছেড়ে চলে গিয়েছেন। কেন না, তাঁদের আমার প্রতি আর কোনও টানই নেই”।

এই প্রসঙ্গ টেনেই বলা যায়, একবার গৌরীকে শাহরুখের কাকা শশুর অর্থাৎ গৌরীর কাকা এক চাইনিজ পেকিনিজ কুকুর উপহার দিয়েছিলেন। শাহরুখও ওই চারপেয়েকে ভালবাসত। একবার শাহরুখ গিয়েছে শুটিংয়ে। হঠাৎ করেই কুকুরটা অসুস্থ হয়ে মারা যায়। বাড়ির কর্মচারীরা তাকে নিয়ে ভাল করে মুড়ে সমুদ্রের পাড়ে কবর দিয়ে আসে।

এরপর শাহরুখ মাঝরাতে বাড়ি এসে পোষ্যর কথা জানতে চাইলে সবাই সত্যি কথাই বলে। রাত আড়াইটের সময় কিচ্ছু না শুনে কবরের কাছে গিয়ে আবার কবর খুঁড়িয়ে সেই কুকুরকে ও নিজের বাড়ি নিয়ে আসে। শাহরুখ নাকি কাঁদতে কাঁদতে বলতে থাকে, “ও আমাদের সঙ্গে থাকবে জীবিত হোক বা মৃত”।এরপর বাড়ির পিছনেই ওকে সমাধিস্থ করা হয়।

Back to top button